if you want to remove an article from website contact us from top.

    জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ

    Mohammed

    বন্ধুরা, কেউ কি উত্তর জানেন?

    এই সাইট থেকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ পান।

    বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব

    বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব

    উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

    ১. বাংলাদেশ

    ২. মিয়ানমার ৩. হন্ডুরাস ৪. ভিয়েতনাম ৫. নিকারাগুয়া ৬. হাইতি ৭. ভারত

    ৮. ডমিনিক প্রজাতন্ত্র

    ৯. ফিলিপাইন ১০. চীন

    জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় শীর্ষে বাংলাদেশ। সূত্র: জার্মান ওয়াচ।[১]

    বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বলতে বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বাংলাদেশে যে অস্থায়ী কিংবা স্থায়ী নেতিবাচক এবং ইতিবাচক প্রভাব পড়ছে, তার যাবতীয় চুলচেরা বিশ্লেষণকে বোঝাচ্ছে। ইউএনএফসিসিসি বৈশ্বিক উষ্ণায়নকে মানুষের কারণে সৃষ্ট,[২] আর জলবায়ুর বিভিন্নতাকে অন্য কারণে সৃষ্ট জলবায়ুর পরিবর্তন বোঝাতে ব্যবহার করে। কিছু কিছু সংগঠন মানুষের কারণে সৃষ্ট পরিবর্তনসমূহকে মনুষ্যসৃষ্ট জলবায়ুর পরিবর্তন বলে। তবে একথা অনস্বীকার্য যে, বিশ্বব্যাপি জলবায়ুর পরিবর্তন শুধুমাত্র প্রাকৃতিক কারণেই নয়, এর মধ্যে মানবসৃষ্ট কারণও সামিল। এই নিবন্ধে "বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন" বলতে শ্রেফ জলবায়ু পরিবর্তনকে বোঝানো হচ্ছে।

    জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে পরিবেশের বিপর্যয়ের এই ঘটনাকে বাংলাদেশ সরকারের বাংলাদেশ বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় কর্তৃক নব্বইয়ের দশকে প্রণীত ন্যাশনাল এনভায়রনমেন্ট ম্যানেজমেন্ট এ্যাকশন প্ল্যান-এ দীর্ঘমেয়াদি সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।[৩] কোনো দেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব সত্যিই পড়ছে কিনা, তা চারটি মানদন্ডে বিবেচনা করা হয়:

    ১. জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে কারা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত

    ২. কোথায় প্রাকৃতিক দুর্যোগ বেশি হচ্ছে

    ৩. সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যা কোথায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে

    ৪. ক্ষতিগ্রস্ত দেশটি ক্ষতি মোকাবিলায় বা অভিযোজনের জন্য এরই মধ্যে কী কী পদক্ষেপ নিয়েছে।

    বাংলাদেশে একাধারে সমুদ্রস্তরের উচ্চতা বৃদ্ধি, লবণাক্ততা সমস্যা, হিমালয়ের বরফ গলার কারণে নদীর দিক পরিবর্তন, বন্যা ইত্যাদি সবগুলো দিক দিয়েই ক্ষতিগ্রস্ত হবে এবং হচ্ছে। এছাড়া প্রাকৃতিক দুর্যোগের মাত্রাও অনেক অনেক বেশি। মালদ্বীপ, টুভ্যালু, টোবাগো -এদের সবার ক্ষেত্রেই এই সবগুলো মানদন্ডই কার্যকর নয়। তাছাড়া মালদ্বীপের মোট জনসংখ্যা বাংলাদেশের অনেক জেলার জনসংখ্যার চেয়েও কম।[৪] তাই এই চারটি মানদন্ডেই বাংলাদেশ, জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় শীর্ষে।

    আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান -এর ২০১০ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত গ্লোবাল ক্লাইমেট রিস্ক ইনডেক্স অনুযায়ী জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে ক্ষতির বিচারে শীর্ষ ১০টি ক্ষতিগ্রস্ত দেশের মধ্যে প্রথমেই অবস্থান করছে বাংলাদেশ। এই সমীক্ষা চালানো হয় ১৯৯০ থেকে ২০০৯ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত ১৯৩টি দেশের উপর। উল্লেখ্য, উক্ত প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রকাশিত ২০০৭ এবং ২০০৮ খ্রিষ্টাব্দের প্রতিবেদনেও বাংলাদেশ সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ।[১][৫] জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে সমুদ্রস্তরের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে ক্ষতিগ্রস্ততার বিচারে বিশ্বব্যাপী গবেষকগণ বাংলাদেশকে হিসেবে আখ্যা দিয়ে থাকেন।[৫]

    বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থান ও পরিবেশ[সম্পাদনা]

    মূল নিবন্ধ: বাংলাদেশের ভূগোল

    বাংলাদেশের অবস্থান

    বাংলাদেশ, দক্ষিণ এশিয়ার একটি দেশ, যা ২৬° ৩৮' উত্তর অক্ষাংশ থেকে ২০° ৩৪' উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮° ০১' পূর্ব দ্রাঘিমাংশ থেকে ৯২° ৪১' পূর্ব দ্রাঘিমাংশ পর্যন্ত বিস্তৃত। এই দেশটির পশ্চিম, উত্তর, আর পূর্ব সীমান্ত জুড়ে রয়েছে ভারত। পশ্চিমে রয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য। উত্তরে পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, মেঘালয় রাজ্য। পূবে আসাম, ত্রিপুরা, মিজোরাম। তবে পূর্বদিকে ভারত ছাড়াও মিয়ানমারের (বার্মা) সাথে সীমান্ত রয়েছে। দক্ষিণে রয়েছে বঙ্গোপসাগর। ভূতাত্ত্বিকভাবে, দেশটি থেকে উত্তর দিকে রয়েছে সুউচ্চ হিমালয় পার্বত্যাঞ্চল, যেখান থেকে বরফগলা পানির প্রবাহে সৃষ্ট বড় বড় নদী (গঙ্গা, ব্রহ্মপুত্র, মেঘনা ইত্যাদি) বাংলাদেশের ভিতর দিয়ে প্রবহমান এবং নদীগুলো গিয়ে দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরে পড়ছে। বর্ষাকালে নদীবাহিত পানির প্রবাহ বেড়ে গেলে নদী উপচে পানি লোকালয়ে পৌঁছে যায়, এবং দেশটি এভাবে প্রায় প্রতি বছরই বন্যায় আক্রান্ত হয়।[৬] এই দেশটির প্রায় মাঝখান দিয়ে কর্কটক্রান্তি রেখা অতিক্রম করেছে এবং এর আবহাওয়াতে নিরক্ষীয় প্রভাব লক্ষ করা যায়। বছরে বৃষ্টিপাতের মাত্রা ১৫০০-২৫০০মিলিমিটার (৬০-১০০ইঞ্চি); পূর্ব সীমান্তে এই মাত্রা ৩৭৫০ মিলিমিটার (১৫০ইঞ্চির বেশি)। স্বাভাবিক অবস্থায় গড় তাপমাত্রা ২৫° সেলসিয়াস। আবহমান কাল থেকে এদেশে ঋতুবৈচিত্র্য বর্তমান ছিল, ছয়টি ঋতুর বৈশিষ্ট্য আলাদা আলাদাভাবে এই দেশে উপলব্ধ হয়; গ্রীষ্ম-বর্ষা-শরৎ-হেমন্ত-শীত-বসন্ত -এই ছয় ঋতুর কারণে দেশটিকে ও বলা হয়ে থাকে। নভেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত হালকা শীত অনুভূত হয়। মার্চ থেকে জুন পর্যন্ত গ্রীষ্মকাল চলে। জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এদেশে মৌসুমী বায়ু সক্রীয় থাকে[৭], তাই জুন থেকে অক্টোবর পর্যন্ত চলে বর্ষা মৌসুম। এসময় মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে এখানে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়, যা অনেক সময়ই বন্যায় ভাসিয়ে দেয়। এছাড়াও মৌসুমী বায়ুপ্রবাহের আগমুহূর্তে কিংবা বিদায়ের পরপরই স্থলভাগে ঘূর্ণিঝড়, টর্নেডো, কিংবা সাগরে নিম্নচাপ, জল-ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছাস ইত্যাদি প্রাকৃতিক দুর্যোগ সৃষ্টি হয়[৭], যার আঘাতে বাংলাদেশ প্রায় নিয়মিতই আক্রান্ত হয়। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের প্রত্যক্ষ প্রভাবে বাংলাদেশের এই স্বাভাবিক চিত্রটি এখন অনেকখানি বদলে গেছে। তাপমাত্রা, বৃষ্টিপাত, বায়ুপ্রবাহ, সমুদ্রস্তর -সর্বদিক দিয়ে সংঘটিত এসকল পরিবর্তন বাংলাদেশে, জলবায়ুগত স্থূল পরিবর্তন সৃষ্টি করেছে।

    জলবায়ু পরিবর্তনে নেতিবাচক প্রভাব[সম্পাদনা]

    বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশে যে বিবিধ নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে এবং ইতোমধ্যে পড়েছে, তার বিস্তারিত নিচে উল্লেখ করা হলো:

    মরুকরণ বন্যা ঝড় সমুদ্রপৃষ্ঠের

    উচ্চতা বৃদ্ধি কৃষিতে

    অনিশ্চয়তা

    মালাউয়ি বাংলাদেশ ফিলিপাইন সব নিচু দ্বীপদেশ সুদান

    ইথিওপিয়া চীন বাংলাদেশ ভিয়েতনাম সেনেগাল

    জিম্বাবুয়ে ভারত মাদাগাস্কার মিসর জিম্বাবুয়ে

    ভারত কম্বোডিয়া ভিয়েতনাম তিউনিশিয়া মালি

    সূত্র : bn.wikipedia.org

    জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান ইন্দিরার

    ঢাকা, ২৩ মার্চ, ২০২২ (বাসস): জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন নারী

    জাতীয় বাসস

    ২৩ মার্চ ২০২২, ১৪:২৯

    আপডেট  : ২৩ মার্চ ২০২২, ১৪:৩৫

    জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান ইন্দিরার

    ঢাকা, ২৩ মার্চ, ২০২২ (বাসস): জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন নারী ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

    গতকাল মঙ্গলবার (বাংলাদেশ সময় রাতে) জাতিসংঘ সদরদপ্তরের সাধারণ পরিষদ হলে কমিশন অন দ্য স্টাটাস অব উইমেন (সিএসডব্লিউ)’র ৬৬তম অধিবেশনে দেওয়া বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান তিনি। খবর সংবাদ বিজ্ঞপ্তির।

    সিএসডব্লিউ’র এবারের প্রতিপাদ্য হলো,  ‘জলবায়ু পরিবর্তন, পরিবেশ ও দুর্যোগ ঝুঁকি  হ্রাস নীতি ও কর্মসূচিসমূহের প্রেক্ষাপটে লিঙ্গ-সমতা অর্জন এবং সকল নারী ও মেয়েদের ক্ষমতায়ন।’

    প্রতিমন্ত্রী বলেন, এছাড়া জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় নারীরা। প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে কার্বন নি:সরণ হ্রাস ও লিঙ্গ-সমতা ভিত্তিক টেকসই বিশ্ব নিশ্চিত হতে পারে।

    বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে সৃষ্ট বাংলাদেশের নাজুক পরিস্থিতি ও দুর্যোগ ঝুঁকির ওপর আলোকপাত করে তিনি বলেন, বৈশ্বিক জলবায়ু ঝুঁকি সূচক ২০২১ অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান ৭ম, যদিও বৈশ্বিক কার্বন নি:সরণে আমাদের অবদান মাত্র দশমিক ৪৭ শতাংশেরও কম।

    তিনি এসময় বাংলাদেশের লিঙ্গ সংবেদনশীল জলবায়ু কর্মসূচি, অভিযোজন,  প্রশমন, ও দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকার গৃহীত বিভিন্ন আইন, নীতি, ও কর্মসূচিসমূহের কথা উল্লেখ করেন।

    অন্যদিকে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা কৌশল ও কর্মপরিকল্পনা ২০০৯,  জলবায়ু পরিবর্তন  ট্রাষ্ট ফান্ড আইন ২০১০, জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি ২০১১, জলবায়ু পরিবর্তন ও লিঙ্গ কর্মসূচি পরিকল্পনা ২০১৩, দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার জাতীয় পরিকল্পনা ২০২১-২০২৫, সেন্দাই ফ্রেমওয়ার্ক ফর ডিজাজটার রিক্স রিডাকশন ২০১৫-২০৩০, সাইক্লোন প্রস্তুতি কর্মসূচি,  মুজিব জলবায়ু সমৃদ্ধি পরিকল্পনা দশক ২০৩০, প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ২০৪১, বদ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০, সাইক্লোন শেল্টার হিসেবে মুজিব কেল্লা স্থাপনসহ বিভিন্ন পদক্ষেপের উদাহরণ তুলে ধরেন তিনি।

    অধিবেশন গত ১৪ মার্চ শুরু হয়েছে শেষ হবে আগামী ২৫ মার্চ।

    সর্বশেষ জনপ্রিয়

    ৬৪ বছরের রাজনৈতিক জীবনে সাংবাদিকদের অনেক সহযোগিতা পেয়েছি : রাষ্ট্রপতি

    দেশে খাদ্য মজুদ পর্যাপ্ত, আতঙ্কিত হয়ে কেনাকাটা না করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের

    দশম ওয়েজবোর্ড গঠন এবং নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নে সোচ্চার হতে বিএফইউজে’র শীর্ষ নেতৃবৃন্দের আহ্বান

    দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩ জন আক্রান্ত

    এডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকদার দলের দুর্দিনে দায়িত্ব পালন করেছেন, কিন্তু আত্মপ্রচার করতেন না : পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

    চরাঞ্চলের মানুষের জীবনমানের উন্নয়নে কাজ করছে সরকার : স্বপন ভট্টাচার্য্য

    বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে উন্নত বাংলাদেশের স্বপ্নকেই হত্যা করা হয়েছিল : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

    জলবায়ু অভিযোজন কর্মকান্ডে যুক্তরাজ্য এবং জিসিএ’র সহায়তা চাইলেন পরিবেশমন্ত্রী

    ঋণের সুদহারে পরিবর্তন আসছে : গভর্নর

    বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য জলবায়ু চুক্তি স্বাক্ষর 

    বন্যাপ্রবণ এলাকার ঝুঁকি কমাতে ৪,৩২৩ কোটি টাকার প্রকল্প একনেকে অনুমোদন  

    বাংলাদেশে পৌঁছেছে আয়ারল্যান্ড দল

    মাশরাফিকে টপকে গেলেন সাকিব

    বাণিজ্যমন্ত্রী অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিদেশীদের বিনিয়োগের আহ্বান জানালেন

    গুলিস্তানে বিস্ফোরণ : ভবন মালিকসহ তিনজন কারাগারে

    শরীয়তপুরে যুবলীগের উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ

    সরকার প্রবাসী কর্মীদের জন্য বাধ্যতামূলক বীমা চালু করেছে : প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

    ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের জন্য জাতীয় ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

    ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি২০ সিরিজ জয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটদলকে স্পিকারের অভিনন্দন

    প্রতি মাসেই বহুমুখী পাটপণ্য মেলা আয়োজন করা হবে : পাটমন্ত্রী

    সব খবর

    মিথ্যা বলা, দুর্নীতি ও লুটপাট করা তাদের অভ্যাস : বিএনপির সমালোচনায় প্রধানমন্ত্রী 

    ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হতে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করুন : প্রধানমন্ত্রী

    নির্বাচন পরিচালনায় ইসি সম্পূর্ণ স্বাধীন: প্রধানমন্ত্রী

    ‘বাংলাদেশ বিজনেস সামিট-২০২৩’ এর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

    ময়মনসিংহে ১০৩টি উন্নয়ন প্রকেল্পর উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন প্রধানমন্ত্রীর

    ভোলায় ১৮৩৮৩ হেক্টর জমিতে তরমুজের আবাদ : বাম্পার ফলনের প্রত্যাশা

    সিরিজ নিশ্চিত করতে চায় টাইগাররা

    পঞ্চগড়ের অগ্নিসন্ত্রাস মনিটর হয়েছে ঢাকা ও লন্ডন থেকে : তথ্যমন্ত্রী

    বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ

    প্রধানমন্ত্রী কাতার সফর সম্পর্কে সোমবার সাংবাদিকদের ব্রিফ করবেন

    বিএনপি আন্দোলনের পথ হারিয়ে দিশেহারা : ওবায়দুল কাদের

    দিনাজপুরে ৪ হাজার ৪৮০ হেক্টর জমিতে লিচুর চাষ

    পার্বত্য চট্টগ্রামে জিয়া বিভেদ করেছেন, শেখ হাসিনা শান্তি সম্প্রীতি গড়েছেন : তথ্যমন্ত্রী 

    ড. ইউনূসের পক্ষে ৪০ বিদেশি নাগরিকের বক্তব্য উদ্দেশ্য প্রণোদিত : বঙ্গবন্ধু পরিষদ

    ইউক্রেন চলতি বছরই যুদ্ধ শেষ করতে চায় : কিয়েভ

    বাংলাদেশের সমুদ্রবন্দর, বিমানবন্দরে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী সৌদি আরব

    জাহাজ পুনঃ প্রক্রিয়াকরণ শিল্পে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশ ভালো অবস্থান করে নিতে পারবে : শিল্পমন্ত্রী

    বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ড সিরিজের চূড়ান্ত সূচি ঘোষণা

    প্রধানমন্ত্রীর সফর উপলক্ষে ময়মনসিংহ পরিণত হয়েছিল উৎসবের নগরীতে 

    লক্ষ্মীপুরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে শতাধিক হেলমেট বিতরণ

    সুনাক-ম্যাঁক্রো অভিবাসী চুক্তিতে সম্মত

    ইভিএম নির্ভরযোগ্য, এটা নিয়ে কোন অভিযোগ নেই : সিইসি

    জনগণই আওয়ামী লীগের শক্তির একমাত্র উৎস : ওবায়দুল কাদের

    ফ্রান্সে পেনশন সংস্কার পরিকল্পনা সিনেটে অনুমোদন

    যশোরে আদ্-দ্বীন সকিনা মেডিকেল কলেজের ৫শ’ শয্যার হাসপাতাল উদ্বোধন

    তৃতীয়বারের মত প্রিমিয়ার লিগের মাস সেরা খেলোয়াড় রাশফোর্ড

    ইসরায়েলে বিরোধীদের দৃষ্টিতে সৌদি-ইরান চুক্তি নেতানিয়াহুর ব্যর্থতা 

    স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের সৈনিক হবে নতুন প্রজন্ম : পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

    সূত্র : www.bssnews.net

    Daily Inqilab

    Daily Inqilab The Most Popular Bangla Newspaper, Brings You Latest Bangla News Online. Get Breaking News From The Most Reliable Bangladesh Newspaper. It covers Just Now News, Politics, Economies, National, International, Entertainment, & More

    মঙ্গলবার, ০৭ মার্চ ২০২৩, ২২ ফাল্গুন ১৪২৯, ১৪ শাবান ১৪৪৪ হিজিরী

    মোবাইল সাইট ই-পেপার আর্কাইভ ভিডিও ফটো গ্যালারি

    Ads by Ad.Plus শিরোনাম

    মাত্র ৪৮ ঘণ্টায় দেউলিয়া হলো যুক্তরাষ্ট্রের ২য় বৃহত্তম ব্যাংক বিএনপির মানববন্ধন আজ, পাল্টা কর্মসূচি আওয়ামী লীগ নারী দিবস ম্যারাথনে পাপিয়া চ্যাম্পিয়ন ৯৯ স্পোর্টস ক্লাবের ক্রিকেট শুক্রবার গুলিস্তানের বিস্ফোরণে নিহত ১৬ জনের নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে কাবুলে বাণিজ্য ও স্থায়ী প্রদর্শনী কেন্দ্র খুলেছে ইরান সাম্প্রতিককালের ঘটনাগুলোতে নাশকতা আছে কিনা তদন্ত করবে র‍্যাব নিম্ন আয়ের পরিবারকে আধুনিক অ্যাপার্টমেন্ট দিচ্ছে ইরান উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন : ১২ হাজার রোহিঙ্গার পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শুরু যে পণ্য রপ্তানিতে তেলের চেয়েও বেশি আয় হতে পারে ইরানের

    মাত্র ৪৮ ঘণ্টায় দেউলিয়া হলো যুক্তরাষ্ট্রের ২য় বৃহত্তম ব্যাংক

    ইনকিলাব ডেস্ক । ১১ মার্চ, ২০২৩, ৯:৫১ এএম

    চলতি সপ্তাহের বুধবারও আর দশটি সাধারণ ব্যাংকের মতো বাণিজ্যিক ও আর্থিক লেনদেন সম্পন্ন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক (এসভিপি), যা দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম বাণিজ্যিক ব্যাংক হিসেবে স্বীকৃত। বর্তমান মূল্যস্ফীতি পরিস্থিতিতে দেশটির অন্যান্য ব্যাংকের মতো এসভিপিও খানিকটা তারল্য সংকটে ভুগছিল, তবে তা একেবারেই নগন্য। কিন্তু তারপর, মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে একদম দেউলিয়া হয়ে পড়েছে এসভিপি। শুক্রবার ব্যাংকের পরিচালনা কমিটির সদস্যরা দেশজুড়ে এসভিপির সমস্ত শাখা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি। ব্যাংকটির এই অবস্থার মূল কারণ গুজব। বুধবার হঠাৎ চাউর হয়ে যায়, গুরুতর আর্থিক ঘাটতিতে ভুগছে সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক। ঘাটতির পরিমাণ এতটাই যে, ব্যাংকের ব্যালান্স শিটের কিনারা করতেই প্রয়োজন অন্তত ২২৫ কোটি ডলার। এই গুজব ছড়িয়ে পড়ার পর এসভিপি থেকে গ্রাহকদের...

    সাম্প্রতিককালের ঘটনাগুলোতে নাশকতা আছে কিনা তদন্ত করবে র‍্যাব

    নিজস্ব প্রতিবেদক । ৭ মার্চ, ২০২৩, ১১:৩৩ পিএম

    সাম্প্রতিককালে বেশ কয়েকটা ঘটনার বিষয়ে র‍্যাব খুবই চিন্তিত বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির মহাপরিচালক এম খুরশীদ হোসেন। তিনি বলেন, বিষয়গুলোর সঙ্গে কোনও নাশকতা আছে কিনা তদন্ত না করে হুট করে কিছু বলা যাবে না। কিন্তু আমাদের কাছে সন্দেজনক মনে হচ্ছে। সেজন্য আমরা গোয়েন্দা নামিয়েছি, তারা খতিয়ে দেখবে...

    বিস্ফোরণের ঘটনায় মাথায় আঘাত ও রক্তক্ষরণে বেশি মৃত্যু : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

    অনলাইন ডেস্ক । ৭ মার্চ, ২০২৩, ৯:৪৫ পিএম

    স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, রাজধানীর গুলিস্তানের সিদ্দিক বাজার এলাকায় ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় মাথায় আঘাত ও রক্তক্ষরণে বেশি মৃত্যু হয়েছে। কিছু লোকের আবার পুড়েও গেছে। মঙ্গলবার (৭ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঢামেক হাসপাতালে বিস্ফোরণের ঘটনায় আহতদের পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। জাহিদ মালেক বলেন, শেখ...

    Ads by Ad.Plus সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত

    মাত্র ৪৮ ঘণ্টায় দেউলিয়া হলো যুক্তরাষ্ট্রের ২য় বৃহত্তম ব্যাংক

    বিএনপির মানববন্ধন আজ, পাল্টা কর্মসূচি আওয়ামী লীগ

    নারী দিবস ম্যারাথনে পাপিয়া চ্যাম্পিয়ন

    পটুয়াখালীর যুবক ক্বারী সাইয়্যেদ মুসতানজিদ বিল্লাহ রব্বানীর কোরআন তেলাওয়াতে মুগ্ধ যুক্তরাষ্ট্রবাসী

    ৯৯ স্পোর্টস ক্লাবের ক্রিকেট শুক্রবার

    জি২০-তে ভারত গুরুত্বপূর্ণ নেতৃত্বের ভূমিকা পালন করছে: আর্জেন্টিনা

    গুলিস্তানের বিস্ফোরণে নিহত ১৬ জনের নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে

    কাবুলে বাণিজ্য ও স্থায়ী প্রদর্শনী কেন্দ্র খুলেছে ইরান

    সাম্প্রতিককালের ঘটনাগুলোতে নাশকতা আছে কিনা তদন্ত করবে র‍্যাব

    নিম্ন আয়ের পরিবারকে আধুনিক অ্যাপার্টমেন্ট দিচ্ছে ইরান

    সব সংবাদ

    বিএনপির মানববন্ধন আজ, পাল্টা কর্মসূচি আওয়ামী লীগ

    গুলিস্তানে বিস্ফোরণ : নিহত ৮ জনের পরিচয় শনাক্ত করল পরিবার

    বিস্ফোরণস্থলে সেনাবাহিনীর বোম ডিস্পোজাল ইউনিট

    ভবনের বেজমেন্টে মানুষ আটকে থাকতে পারে, ধারণা পুলিশের

    গুলিস্তানে বিস্ফোরণ, যা জানালেন ডিএমপি কমিশনার

    একটি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে উদ্বুদ্ধ করেছে ৭ মার্চের ভাষণ : ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত এমপি

    সাতই মার্চের ভাষণ শুনেই মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি শুরু করে নিউক্লিয়াস: চসিক মেয়র

    রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মেশিনারি পণ্য এসেছে মোংলা বন্দরে

    সূত্র : www.old.dailyinqilab.com

    আপনি উত্তর বা আরো দেখতে চান?
    Mohammed 17 day ago
    4

    বন্ধুরা, কেউ কি উত্তর জানেন?

    উত্তর দিতে ক্লিক করুন